জেএসসিতে রাজশাহী বোর্ডের শীর্ষে জয়পুরহাট

এবারের জেএসসি পরীক্ষার ফলাফলে রাজশাহী বোর্ডে শীর্ষে রয়েছে জয়পুরহাট জেলা। তবে শিক্ষা নগরী খ্যাত রাজশাহীর অবস্থান আটের মধ্যে ছয়। শনিবার বেলা সোয়া ২টার পর রাজশাহী শিক্ষাবোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক অধ্যাপক তরুণ কুমার সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন।

বোর্ডের সার্বিক ফলাফল পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, রাজশাহী বিভাগের আট জেলার মধ্যে পাসের হারে এগিয়ে জয়পুরহাট জেলা। এখানকার পাসের হার ৯৮ দশমিক ৪৩ শতাংশ। জেলার মোট পরীক্ষার্থী ছিলো ১০ হাজার ৩৫৯ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১০ হাজার ১৯৬ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হাজার ১২৫ জন।

বোর্ডে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে বগুড়া জেলা। এখানকার পাসের হার ৯৭ দশমিক ২১ শতাংশ। এ জেলার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৪০ হাজার ২৫ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৩৮ হাজার ৯০৯ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৮ হাজার ১৫২জন।

৯৫ দশমিক ৯৮ শতাংশ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হওয়ায় বোর্ডে তৃতীয় অবস্থানে নওগাঁ জেলা। এখানকার মোট পরীক্ষার্থী ছিলো ২৯ হাজার ৪৯৯ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ২৮ হাজার ৩১৪ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ৮৭২ জন। নওগাঁয় ৯৬ দশমিক ৪৩ শতাংশ মেয়ে এবং ৯৫ দশমিক ৫২ শতাংশ ছেলে উত্তীর্ণ হয়েছে।

বোর্ডে চতুর্থ অবস্থানে রয়েছে পাবনা জেলা। এ জেলায় পাসের হার ৯৫ দশমিক ৮১ শতাংশ। এখানে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৩৫ হাজার ২৩৩ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৩৩ হাজার ৭৫৫ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪ হাজার ৬৪০ জন।

৯৫ দশমিক ০৩ শতাংশ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হওয়ায় বোর্ডে পঞ্চম অবস্থানে সিরাজগঞ্জ জেলা। এখানকার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৪২ হাজার ৪১৯ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৪০ হাজার ৩০৯ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ৭৯৪ জন।

বোর্ডে ষষ্ঠ অবস্থানে রয়েছে রাজশাহী জেলা। এ জেলায় পাসের হার ৯৪ দশমিক ৬৩ শতাংশ। এখানে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ৩৬ হাজার ৬০৮ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ৩৪ হাজার ৬৪২ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫ হাজার ৮৭২ জন।

৯৪ দশমিক ১৩ শতাংশ শিক্ষার্থী উত্তীর্ণ হওয়ায় বোর্ডে সপ্তম নাটোর জেলা। এখানকার মোট পরীক্ষার্থী ছিল ২৩ হাজার ৪৮ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ২১ হাজার ৬৯৫ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হাজার ৪৮১ জন।

ফলাফলে বোর্ডের তলানিতে রয়েছে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা। এ জেলায় পাসের হার ৯৩ দশমিক ৯৮ শতাংশ। এখানে মোট পরীক্ষার্থী ছিল ১৯ হাজার ৯০৯ জন। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হয়েছে ১৮ হাজার ৭১০ জন। জিপিএ-৫ পেয়েছে ২ হাজার ৬৯৭ জন।

শিক্ষাবোর্ড জানিয়েছে, বোর্ডে এবার পরীক্ষার্থী ছিল ২ লাখ ৪২ হাজার ৪৫১ জন। এর মধ্যে অংশ নেয় ২ লাখ ৩৭ হাজার ১০০ জন। পাস করেছে ২ লাখ ২৬ হাজার ৫৩০ জন। এবছর জিপিএ ৫ পেয়েছে ৩৭ হাজার ৬৩৩ জন। এর মধ্যে ২১ হাজার ২৩ জন মেয়ে এবং ১৬ হাজার ৬১০ জন ছেলে।

গত বছর ২১ হাজার ৮৭৬ জন মেয়ে এবং ১৮ হাজার ৫৯৫ জন ছেলেসহ মোট ৪০ হাজার ৪৭১ জন জিপিএ-৫ পায়। গত বছর উপস্থিত মোট পরীক্ষার্থী ছিলো ২ লাখ ২৬ হাজার ৬৯২ জন। এর মধ্যে ৯৭ দশমিক ৯৩ শতাংশ মেয়ে এবং ৯৭ দশমকি ৪৩ শতাংশ ছেলে পাস করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *